Shopnobilap
সেদিন চোখে জল ছিলনা

সেদিন চোখে জল ছিলনা

সেদিন অবাধ্যের মতো তোমাকে অন্যের হাতে তুলে দেয়া ছাড়া কিছু করার ছিলোনা | আমি বাধ্য ছিলাম তোমাকে অন্যের হাতে তুলে দিতে কারন আমি তোমাকে ভালবাসি। আমি বাধ্য ছিলাম চোখের সামনে দিয়ে অন্যের হাত ধরে তেমার চলে যাওয়া দেখতে কারন আমি কথা দিয়েছিলাম তোমাকে যেভাবেই হোক ভাল রাখবো। হাসিখুশি রাখবো |




আমি যে তোমার চোখের জল সজ্য করতে পারিনা। তোকে বড্ডবেশি ভালবাশি রে -পাগলি। তাই তোর হঠাৎ চলে যাওয়া সেদিন মেনে নিতে পারিনি। আজ মনে প্রশ্ন জাগে এ কেমন প্রতিশোধ নিলি তুই আমার নিষ্পাপ ভালবাসার ওপর? আমিতো তোকে ভালবাসতে বাধ্যা করিনি বরং তুই প্রথম হাতবারিয়ে দিয়েছিলি আমার দিকে আার আমি সদরে গ্রহন করেছিলাম। সেদিন কোন প্রশ্ন করিনি, কিন্তু আজ তোকে ছোট একটা প্রশ্ন করতে খুব ইচ্ছে করছে !  তুই আমার সবকিছু কেরে নিলি কেনো? কেনো? আজ তোকে ছারা আমার কোন আবেগ নেই, আমার ভাললাগা, মন্দ লাগা, আবেগ, অনূভুতি সবকিছু হারিয়ে গেছে, আমি পরিনতো হয়েছি মানুষ  নামে রোবোট। কেন? কেন ?

যদি ক্ষমতা  থাকতো তবে একজন মানুষকে রোবট বানানোয় বিশ্বের সর্বচ্চ খেতাবটি তোকে দিতাম।

মনে আছে সেদিনের কথা? তোর গায়ে হলুদ এর দিন ছিলো সেপ্টেম্বরের ৯ তারিখ ২০১৪ শুক্রবার। যে হাতে তোকে আদর করেছি, যে হাতে তোকে খাইয়ে দিয়েছি, সেই হাতে তোর গায়ে হলুদ মেখেছি, আগামিকাল তোর বিয়ে বলে। আর এ তোর কি একটা বারের জন্য ও মনে হয়নি যে  আমার কতটা কষ্ট হচ্ছে? আমার ভেতরটা হাহাকার করছে। একবার ও কি তোর মনে হয়নি, যে ছেলেটা তোর গালে হলুদ মাখছে, একদিন তুই তার সাথে ঘর বাধার স্বপ্ন দেখতি?

জানি, আজ এই প্রশ্ন গুলোর কোনো উত্তর ই নেই তোর কাছে তবুও মন কে ধরে রাখতে পারি না । সেদিন কোনো ভাবেই বুঝতে পারিনি যে বিধাতার এ কেমন নিয়ম, যাকে নিয়ে ঘর বাধার স্বপ্ন দেখলাম আজ তার বিয়ের দায়িত্ব আমার কাধে।

সেদিন চোখে জলছিলোনা, ছিলো তোকে হারাবার বুকভরা হাহাকার। সেদিন আমি কাদিনি, তোকে ভালবাসি বলে, আমি কাদিনি তোকে হাসিখুশি রাখবো বলে। তোর চলে জাওয়া মেনে নিবো বলে। কিন্তু সত্যিই আমি পারিনি। চলে যাওয়ার সময় একবার যদি  পেছন ফিরে তাকাতি, তাহলে বুঝতি এই ২ চখের ভাষা। কিন্তু তুই একবারের জন্যে ও পিছন ফিরি তাকাসনি, জানি একবারের জন্যেও তোর মনে হয়নি যে তুই চলে যাওয়ার পর এই মানুষটির কি হবে, কি ভাবে সে নিজেকে সামাল দিবে তোকে হারাবার কষ্ট। যে মানুষটি একমিনিটি কথা না বলে থাকতো পারতোনা সেই মানুষটি আর কোনোদিনই তোর সাতে কথা  বলতে পারবে না ।

সেদিন চোখের জল লুকিয়ে ফেলতে পারলে ও, ৪ বছর পর তোকে আজও ভুলতে পারিনি। দির্ঘ ৪ বছর পর আজ ও আমি একা, রোবোটিক জীবনযাত্রা কাটাই, যেখানে নিজের জন্য ভাবনার কোন সময় নাই কারন আমি তোমাকে ভালবাশি, কারণ নিজের জন্য ভাবলে এই মায়াহীন পৃথিবীতে আর বেঁচে থাকতে ইচ্ছে হয় না ।




আজ হয়তো তুমি অনেক ব্যস্ত তোমার, সংসার নিয়ে, আমাকে নিয়ে ভাবার এতটুকু সময় ও তুমি পাও না। হয়তোবা ভুলেগেছো আমাকে, মনের অজান্তে ও মনে পরেনা আমার কথা। হয়তো খুব সুখে দিন পারি দিচ্ছ, যেমনটি তুমি চেয়েছিলে। বার বার শুদু আমি ই অবাক হয়েছি  এই ভেবে যে কিভাবে একটা মানুষ আরেকটা মানুষ কে এত সহজে ভুলে যায় ।

আর কেউ জানুক বা না জানুক অন্তত তুমি যেন যে কখনো কিছু চায়নি তোমারকাছে, সবসময় আল্লাহর কাছে প্রাথনা করেছি তিনি জেনো তোমাকে ভাল রাখে, সুস্থ রাখে, সুখে ও শান্তিতে রাখে। সেদিন তোমার চলে যাওয়ার পর থেকে আজ পর্যন্ত আল্লাহর কাছে শুধু একটাই প্রার্থনা করি যে তিনি যেন তোমার দিন গুলো এভাবেই পার করে দেয় , কখনো যেন আমার কথা তোমার মনে না হয়, কারণ একটি বারের জন্য ও যদি আমার কথা তোমার মনে হয়, সেদিন তোমার নিজের প্রতি এতটাই ঘৃণা হবে যে বেঁচে থাকতে ইচ্ছা হবে না ।

সেদিন গুলোতে তোমার কাছে কখনো কিছু চায়নি, আজ শুধু একটাই অনুরোধ, জীবনে চলার পথে কখোনে যদি দেখা হয়ে যায়, প্লিজ না চেনার ভান করে চলে যেওনা , একবারের জন্য হলেও কথা বলো, অন্তত একবারের জন্য হলে ও জিঙ্গেস করো কেমন আছি। না হলে যে আমার এ জীবনের কোন মূল্যই থাকবেনা। সেদিন হয়তো মৃত্যু হাতছানিদিয়ে ডাকবে।



5/5 - (1 vote)
Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Share With Friends & Family

Muradul Hasan

Your Header Sidebar area is currently empty. Hurry up and add some widgets.

Show Buttons
Hide Buttons
x